Breaking News
Home / তথ্য প্রযুক্তি / অবৈধ মোবাইল ফোন সেট বন্ধ – আপনার যা জানা জরুরি

অবৈধ মোবাইল ফোন সেট বন্ধ – আপনার যা জানা জরুরি

অবৈধ মোবাইল ফোন সেট বন্ধ করে দেওয়া নিয়ে সরকারের তরফ থেকে গত দুইবছরে নানা রকম কথা শোনা গেছে।কিন্তু এখন আবার শোনা যাচ্ছে এপ্রিল মাস থেকে বন্ধ করা হবে অবৈধ মোবাইল ফোন সেট।এ নিয়ে জানতে হবে এর আজকের আয়োজনে আমরা জানাবো নানা প্রশ্নের উত্তর।

অবৈধ মোবাইল ফোন সেট বন্ধ – আপনার যা জানা জরুরি

অবৈধ সেট কোনগুলো?

বিটিআরসি এর অনুমতি নিয়ে যে মোবাইল সেটগুলো আমদানি বা প্রস্তুত করা হয় নি সেই সব মোবাইল ফোন সেট অধৈধ।সরকার ২০১৮ সাল থেকে অনুমোদিত সব মোবাইল ফোন সেট এর (ইন্টারন্যাশনাল মোবাইল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি)বা আই এম আই নাম্বার দিয়ে একটি ডাটাবেজ তৈরি করেছে। এই ডাটাবেজে যদি মোবাইল সেটের তথ্য না থাকে সেইগুলোই অবৈধ।

মোবাইল সেট বৈধ না অবৈধ কিভাবে জানবো?

এইজন্য একটি পদ্ধতি জানাচ্ছি তার জন্য আপনার মোবাইল সেটের আই এম আই নাম্বারটি প্রথমে বের করতে হবে আর এর জন্য আপনার মোবাইলে *#06# ডায়াল করে আই এম আই নাম্বার জানতে পারবেন।

এই কোডটি টাইপ করার পর একটি কিংবা দুটি ১৫ সংখ্যার নাম্বার আসতে পারে।যদি দুটি আসে তাহলে যেকোন একটি কপি কিংবা কোন জায়গায় লিখে নিন।এরপর আপনার ম্যাসেজ অপশনে গিয়ে KYD লিখে এরপর আপনার মোবাইল ফোনের আই এম আই নাম্বার টি টাইপ করে পাঠিয়ে দিন 16002 নাম্বারে।

KYD লেখার পর অবশ্যই একটি স্পেস দিবেন এরপর আই এম আই নাম্বারটি টাইপ করবেন।যদি একের অধিক স্পেস কিংবা স্পেস না দিলে আপনার ম্যাসেজটি কোন কাজে আসবেনা।

ম্যাসেজ করার পর আপনার কাছে একটি ফিরতি ম্যাসেজ আসবে।আর সেই ফিরতি ম্যাসেজে যদি বলা হয় আপনার ডিভাইসটি BTRC ডাটাবেজে পাওয়া গেছে তাহলে বুঝে নিবেন আপনার হাতের সেটটি বৈধ উপায়ে আমদানি করা হয়েছে।সুতরাং আপনি আপনার মোবাইল ফোনের বিষয়ে নিশ্চিত থাকতে পারেন।

আরো পড়ুনঃ মোবাইল ডাটা এর গতিতে বিশ্ব তলানিতে বাংলাদেশ

আর ম্যাসেজ সঠিকভাবে পাঠানোর পরেও যদি ম্যাসেজ আসে আপনার ডিভাইসটি বিটিআরসির ডাটাবেজে পাওয়া যায়নি তাহলে বুঝে নিবেন আপনার হাতে থাকা মোবাইল সেটটি বৈধ উপায়ে আমদানি করা হয়নি।

কবে বন্ধ হবে?

বিটিআরসির পক্ষ থেকে জানানো হচ্ছে আগামী বছর অর্থাৎ ২০২১ সালের শুরুর দিকে এর বাস্তবায়ন করার উদ্দেশ্য রয়েছে।এইখানে বলে রাখা প্রয়োজন আপনি যদি নতুন মোবাইল কিনতে যান তাহলে অবশ্যই ম্যাসেজের মাধ্যমে নিশ্চিত করে নিবেন আপনার ডিভাইসটি বৈধ নাকি অবৈধ।

যদি নতুন মোবাইল ফোন কেনার সময় যাচাই করে কিনেন তাহলে পরবর্তীতে এই ডিভাইস নিয়ে কোন ধরণের ঝামেলায় পড়তে হবেনা।তাই আপনি বা আপনার পরিচিতরা নতুন ডিভাইস কেনার পূর্বে তাদের বলুন যাচাই করে কিনতে।

ডাটাবেজে মোবাইল ফোনের তথ্য না থাকলে কী হবে?

যখন থেকে এই পক্রিয়াটি শুরু হবে তখন সরকার চাইলে আপনার মোবাইল সেটটি বন্ধ করে দিতে পারে।তবে বিটিআরসির চেয়ারম্যান জানিয়েছেন যদি মোবাইলটি দিয়ে কোন জালিয়াতি, অনিয়ম, বা প্রতারনা না করা হয়ে থাকে তাহলে তাহলে তারা সেটিকে কোনভাবেই রেজিস্ট্রেশন এর আওতায় আনার চেষ্টা করবেন।

আর কোন ধরণের সমস্যা হলে তা সমাধান করার চেষ্টাও থাকবে বিটিআরসির। এই বিষয়টি এখন যেহেতু পক্রিয়াদিন তাই ঠিক কি হবে, কিভাবে হবে সেটা এখনো নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছেনা।

পুরোনো ফোনের কি হবে?

বিটিআরসি থেকে বলা হচ্ছে ২০১৮ সালের আগের অর্থাৎ ডেটাবেইজ নতিভুক্ত শুরু করার আগের ফোনগুলো বন্ধ করা হবেনা।

বিদেশ থেকে আনা ফোন কি অবৈধ?

বিদেশ থেকে আনানো মোবাইলে ক্ষেত্রে যেহেতু শুল্ক বিভাগের অনুমতি থাকে তাই এক্ষেত্রে অনলাইনে নিবন্ধনের সুযোগ দেওয়ার মতো চিন্তা আছে বিটিআরসির।এক্ষেত্রে এক বা দুইটা নিবন্ধনের সুযোগ দেওয়া হবে।এই জন্য কিনে আনা রশিদ ঠিক মতো রাখতে হবে।আর এই বিষয়ে পরামর্শ দিয়েছেন বিটিআরসি।

আরো পড়ুনঃ স্মার্টফোন সুরক্ষিত রাখার উপায় – মোবাইল সুরক্ষিত রাখার উপায়

কিন্তু অনেক বেশি সংখ্যক আনা হলে সেগুলোর অনুমোদন সহজ হবে না।তবে এইসব বিষয়ে এখনো চূড়ান্ত সরকারি সিদ্ধান্ত হয়নি।

বেসিক ফোনও কি অবৈধ হতে পারে?

আই এম আই নাম্বার যেহেতু সব ফোনের থাকে তাই বেসিক ফোনগুলোও এর আওতায় পড়বে।তবে এই পক্রিয়ার মধ্যে স্মার্টফোনটাকে আগে প্রধান্য দেওয়া হবে।

এইসবগুলো বিষয় এখনো পক্রিয়াদিন তাই কিভাবে পুরো পক্রিয়াটির বাস্তবায়ন করা হবে সেটা সময় আসলেই পরিষ্কার বুঝা যাবে।

Check Also

অ্যামাজনে ফুটন্ত নদী

অ্যামাজনে ফুটন্ত নদী – যেখানে নামলেই হবে মৃত্যু

অ্যামাজনে ফুটন্ত নদী – যেখানে নামলেই হবে মৃত্যু – রুপকথার এক নদী যার ফুটন্ত পানিতে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *