Breaking News
Home / হেলথ টিপস / করোনা ভাইরাস লক্ষণ দেখা দিলে কি খাবেন

করোনা ভাইরাস লক্ষণ দেখা দিলে কি খাবেন

করোনা ভাইরাস লক্ষণ দেখা দিলে কি খাবেন আর কি খাবেন না এ নিয়ে অনেকেই অনেক চিন্তায় থাকেন। করোনা ভাইরাস এমন একটি ভাইরাস যা যেকোন সময় যে কারো হতে পারে। তাই আগে থেকেই জেনে নেওয়া ভালো যে করোনা লক্ষণ দেখা দিলে কি খাওয়া উচিৎ।

এমন কোন খাবার নেই যা করোনা ভাইরাস ধ্বংস করে দিতে পারে। আর পুরো পৃথিবী ভয়ে আছে তাই সবাই হন্য হয়ে একটি সমাধান খুঁজছে।যদি কোন খাবার বা ভ্যাকসিনের মাধ্যমে এই ভাইরাস সারিয়ে ফেলা যায়।

তবে এমন কোন নির্ভরযোগ্য গবেষনাতে এমন তিনটি, চারটি বা দশটি খাবার পাওয়া যায় নি যা খেলে আপনি করোনা ভাইরাস থেকে সুস্থ হয়ে উঠবেন।

করোনা ভাইরাস লক্ষণ দেখা দিলে কি খাবেন

সুষম খাবার

প্রতিদিন বিভিন্ন রকম তরতাজা খাবার খেলে সেই খাবার থেকে আপনার শরীর প্রয়োজনীয় ভিটামিন, মিনারেল, প্রোটিন, ফাইবার ইত্যাদি নিয়ে নিবে।তবে আপনার এটা জানাও প্রয়োজন যে কোন ধরণের খাবার খেলে আপনার শরীর প্রয়োজনীয় ভিটামিন, মিনারেল, প্রোটিন, ফাইবার ইত্যাদি গ্রহন করবে।

আরো পড়ুনঃ বিশ্বের সবচেয়ে পুষ্টিকর খাবার – পুষ্টিকর খাবারের তালিকা

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে প্রতিদিন ২ কাপ ফল, আড়াই কাপ সবজি, ১৮০ গ্রাম শস্যদানা, ১৬০ গ্রাম মাংস অথবা ডাল বা সীম জাতীয় খাবার খেতে।

অনেকে সময় এই ধরণের তথ্য দেখে অনেকেই ভয় পেয়ে যায় আর বলে এত মেপে মেপে কি খাবার খাওয়া যায়? যারা এমনটি ভাবেন তাদের জন্য একটাই পরামর্শ আপনি যদি এই পরামর্শ শতভাগ মানতে না পারেন চেষ্টা করবেন এর কাছাকাছি খাবার গ্রহন করার।তবে চেষ্টা করুন শতভাগ পরামর্শ অনুসরণ করার কারন এতে আপনার শরীর ভালো থাকবে।

সবজি রান্না করার সময় একটা গুরুত্বপূর্ন বিষয় হচ্ছে প্রয়োজনের বেশি তাপে এবং দীর্ঘ সময় ধরে রান্না না করা।কারন প্রয়োজনের বেশি তাপে এবং দীর্ঘ সময় ধরে রান্না করলে সবজিতে যে ভিটামিন থাকে তা নষ্ট হয়ে যায়।

চলুন জেনে নেই কোন খাবারগুলো খাওয়া থেকে বিরত থাকবেনঃ

১- তেলযুক্ত খাবার
২- চর্বিযুক্ত খাবার
৩- চিনিযুক্ত খাবার
৪- পক্রিয়াজাতক খাবার

একটা কথা খেয়াল রাখবেন আগামীকাল কি খাবেন তা আজকে চিন্তা করে রাখা। আপনি যদি প্রতিদিন কি খাবেন সেটার একটি তালিখ তৈরি করেন তাহলে প্রতিদিনের খাবার আপনার বাসায় মজুদ থাকবে। আর এতে ভিটামিন যুক্ত খাবার বাসায় না থাকলে অন্য খাবার গ্রহন করা থেকে বেঁচে যাবেন।

যদি করোনা ভাইরাস লক্ষণ দেখা দেয় তাহলে চেষ্টা করুন প্রতিদিনের একটি খাদ্য তালিকা তৈরি করার আর সেই অনুযায়ী খাবার গ্রহন করার। যদি রোগী তা করতে না পারে তাহলে রোগীর দেখাশোনা যিনি করবেন তিনি এই তালিকা অনুযায়ী রোগীকে খাবার প্রদান করবেন।

ভিটামিন ডি

ভিটামিন ডি মানব শরীরের জন্য খুবি গুরুত্বপূর্ন কিন্তু আই ভাইরাসের ফলে বহুদিন ঘরে আটকে থাকতে হয় বলে সুর্যের আলোতে যাওয়া কঠিন হয়ে পড়ে।কিন্তু শরীরের ভিটামিন ডি তৈরি করতে হলে শরীরে অবশ্যই সূর্যের আলো প্রয়োজন।আর ঘরে আটকে থাকার ফলে অনেকেই সূর্যের আলোতে আসতে পারেন না কিন্তু এতে আপনার শরীরের ভিটামিন ডি এর ঘাটতি দেখা দিতে পারে।

আর এই ঘাটতি থেকে মুক্তি পাওয়ার একটাই উপায় তা হলো ভিটামিন ডি যুক্ত খাবার গ্রহন করা।তবে ভিটামিন ডি ডাক্তারের পরামর্শে গ্রহন করা ভালো কারন ভিটামিন ডি প্রয়োজনের বেশি গ্রহন করলে এতে উল্টো বিপদ হতে পারে।

আরো পড়ুনঃ যে পাঁচটি খাবার করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে পারে

যদি সম্ভব হয় তাহলে রোদের আলোতে গিয়ে শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন ডি গ্রহন করুন।তবে মনে রাখবেন ভিটামিন ডি আপনাকে করোন ভাইরাস থেকে মুক্তি দিবে তা কিন্তু নয়।আপনার শরীরের ভিটামিন ডি এর ঘাটতি থাকতে পারে এই জন্যই এই পরামর্শ।

বিশ্রাম ও পানি

পর্যাপ্ত পরিমান বিশ্রাম নিতে হবে এবং পানি শূন্যতা থেকে রক্ষা পেতে হবে। বিশ্বস্বাস্থ্য সংস্থা বলছে দিনে ৮-১০ গ্লাস পানি পান করতে।আপনি যথেষ্ট পরিমান পানি খাচ্ছেন কিনা সেটা জানার একটাই উপায় আর তা হলো পশ্রাবের রঙ দেখা।

রঙ যদি গাঢ় হলুদ হয় তাহলে আপনি ভাল হাইড্রেটেড না।যদি বমি বা ডায়রিয়া হয় তাহলে খাবার স্যালাইন খেতে হবে।বমি আর ডায়রিয়াও করোনা ভাইরাস লক্ষণ আর এই ধরণের লক্ষণ দেখা দিলে পানি শূন্যতা থেকে নিজেকে রক্ষা করতে হবে।

Check Also

খিদে লাগলেও খাবেন না

খিদে লাগলেও খাবেন না যেসব খাবার

খিদে লাগলেও খাবেন না যেসব খাবার – গোগ্রাসে খাওয়া এই শব্দটির সাথে অনেকেই পরিচিত। প্রচণ্ড …