Breaking News
Home / খেলাধুলা / ফুটবল / ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনা মৃত্যুর আগে কোনো চিকিৎসকই পাননি

ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনা মৃত্যুর আগে কোনো চিকিৎসকই পাননি

ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনা মৃত্যুর আগে কোনো চিকিৎসকই পাননি – ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনা এর মৃত্যু নিয়ে দেখা দিয়েছে বিতর্ক। আইনজীবী মাতিয়াস মোরালা অভিযোগ করেছেন দিয়াগোকে হত্যা করা হয়েছে। তার দাবি মৃত্যুর আগে শেষ ১২ ঘন্টা ম্যারাডোনার খোঁজ নেননি চিকিৎসক ও বাড়িতে দায়িত্বরত নার্সরা।

ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনা

দিয়াগো ম্যারাডোনা

অভিযোগ আমলে নিয়ে ইতিমধ্যে তার চিকিৎসকের বাড়ীতে হানা দিয়েছে পুলিশ। ম্যারাডোনার মৃত্যুর ৫ দিনও হয়নি এরমধ্যের শোকার্ততা কাটিয়ে জন্ম নিয়েছে নানা বিতর্কের। অভিযোগ উঠেছে ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনা এর চিকিৎসা ব্যবস্থা নিয়ে। প্রথমে ম্যারাডোনার আইনজীবী মাতিয়াস মোরালা অভিযোগ আনেন মৃত্যুর আগে ১২ ঘন্টা কোন নার্স খবর নেননি ম্যারাডোনার।

এবার অভিযোগ দিয়াগোর একান্ত ডাক্তার লিও পোলদোর বিরুদ্ধে। এরিমধ্যে ৩০ জনের একটি দল ডক্টর লিও পোলদোর বাসায় তল্লাশি চালিয়েছেন। আরো ২০ জন পুলিশ কর্মকর্তা তল্লাশি চালিয়েছেন ক্লিনিকেও।ম্যারাডোনার শেষদিনগুলো কিভাবে কেটেছে তার চিকিৎসা শেষভাবে করা হয়েছে কিনা সেটির একটি চিত্র বের করতে দায়িত্বরত সরকারি কৌশলে চলছে তল্লাশি।

আরো পড়ুনঃ কাতার বিশ্বকাপ দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচেও জয়ের দেখা পায়নি বাংলাদেশ

লিও পোলদোর বাসা থেকে কম্পিউটার, মোবাইল সহ বিভিন্ন মেডিকেল নোট সংগ্রহ করেছে কৌশলী দল।

লিও পোলদোর বাড়ীতে তল্লাশি হওয়াতে আবেগঘন বার্তা দিয়েছেন তিনি। আমরা সবাই ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনাকে সুস্থ দেখতে চেয়েছি আমি তার মতো কাউকেই দেখিনি। তাকে মানানো এত সহজ ছিলোনা। আমি দায়বদ্ধ কারন আমি তাকে ভালোবাসি। আমি তার জন্য অসাধ্য সাধন করেছি এবং আমি তার জন্য যা করেছি তা আর কেউ করতে পারেনি।

ম্যারাডোনার ডাক্তার লিও পোলদো আরো বলেন আমি তাকে ক্লিনিকে নিয়ে গিয়েছি, সাজেশন দিয়েছি আর সে সুস্থের পথে ছিলো। আমি কখনওই একজন রোগীর উপর জোর জবরদস্তি করতে পারি না। সে না চাইলে আমি কখনো তাকে রোগ নিরাময় কেন্দ্রে নিয়ে যেতে পারতাম না। সে নিজেকে সুস্থবোধ করায় হাসপাতাল থেকে ফিরতে চেয়েছে।

ম্যারাডনাকে শেষে কে জীবিত দেখেছেন সেটা নিয়ে বিতর্ক এখনো শেষ হয়নি। মৃত্যুর দিন সকালবেলা তার পরিচর্যা ঠিকভাবে হয়েছে কিনা তা নিয়েও আছে সংশয়। ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনা এর তিন মেয়েও তাদের বাবাকে কি কি ঔষধ দেওয়া হতো সে ব্যাপারে আরো তথ্য জানার জন্য অনুরোধ করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *