Breaking News
Home / খেলাধুলা / ফুটবল / ম্যারাডোনার বান্ধবীকে শেষ বিদায়ও জানাতে দেননি সাবেক স্ত্রী

ম্যারাডোনার বান্ধবীকে শেষ বিদায়ও জানাতে দেননি সাবেক স্ত্রী

ম্যারাডোনার বান্ধবীকে শেষ বিদায়ও জানাতে দেননি সাবেক স্ত্রী – ম্যারাডোনার সবশেষ বান্ধবী রোসিও অলিভাকে শেষকৃত্যে ঢুকতে দেননি তার সাবেক স্ত্রী ক্লাদিয়া ভিয়াফান। গণমাধ্যমে এনিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন রোসিও অলিভা। এদিকে ম্যারাডোনার স্ত্রী ক্লাদিয়া কোনভাবেই আর ম্যারাডোনার সম্পদের উত্তরাধিকার নন বলে মন্তব্য করেছেন আর্জেন্টিনার এক আইনজীবী। তার মতে ম্যারাডোনার বৈধ ৫ সন্তানই শেষ পর্যন্ত সম্পদের বড় অংশের উত্তরাধিকার পাবে।

ম্যারাডোনার বান্ধবীকে শেষ বিদায়ও জানাতে দেননি

diego maradona wife 2020

ম্যারাডোনার পরিবারের একজন হিসেবে তাকে শেষ বিদায় জানাতে পারেন নি বান্ধবি রোসিও অলিভা। ম্যারাডোনার জীবনে আসা অগনিত নারীর সর্বশেষ জন হলেন এই অলিভা। শেষকৃত্যে অলিভাকে ঢুকতে দেননি ম্যারাডোনার সাবেক স্ত্রী

ম্যারাডোনার বান্ধবী অলিভা জানান ভিয়াফান আমাকে সেখানে ঢুকতে দেননি কিন্তু জানিনা সে কেন আমার সঙ্গে এমন করলো। শুধু শেষ বিদায় জানাতে চেয়েছিলাম। আমি ছিলাম দিয়েগোর শেষ সঙ্গী। বাকিদের তার উপর যতটা অধিকার আমারো ততটা অধিকার। সৃষ্টিকর্তা সব দেখছে একদিন এর মূল্য দিতে হবে।

মূল্যের হিসেব নিকেশ এরিমধ্যে করতে শুরু করছে তার উত্তরাধিকার। ম্যারাডোনার রেখে যাওয়া স্থাবর অস্থাবর সম্পদ নিয়ে সাবেক স্ত্রী, বান্ধবী ও সন্তানদের দন্ধে রুপ নেওয়ার সংখ্যা দেখা দিয়েছে। কারন বাড়ী, গাড়ী ও স্পন্সর চুক্তি মিলিয়ে প্রায় ৯০ মিলিয়ন ডলারের সম্পদ রেখে গেছেন আর্জেন্টাইন ফুটবল জাদুকর ম্যারাডোনা

তবে লড়াইটা যে মূলত বৈধ পাঁচ সন্তানের সেটিও স্পষ্ট করেছেন আইনজীবী মার্টিন অ্যাপোলো। কারন প্রথমত ক্লাদিয়া ভিয়াফান আর তার বৈধ স্ত্রী ছিলেন না। পরবর্তীতে আর কোন বৈধ স্ত্রীও ছিলোনা ম্যারাডোনার।

আইনজীবী মার্টিন অ্যাপোলো বলেছেন ক্লাদিয়া যা করেছেন তা অনুচিত। সে অনেক আগেই তার অধিকার হারিয়েছেন কারন ম্যারাডোনা তাকে তালাক দিয়েছেন। ম্যারাডোনা আর কোন বিয়েও করেননি। সুতরাং তার বৈধ পাঁচ সন্তানি হবে সম্পদের বড় দাবীদার। কারন তারাই ম্যারাডোনার পরিচয় বহন করছে।

স্বীকৃতি পাঁচের বাইরে স্বীকৃতি না পাওয়া আরো ছয়জন ম্যারাডোনার সন্তান বলে দাবী করেন সব মিলিয়ে ম্যারাডোনার উত্তরধিকারের লড়াইটা আদালতে পৌঁছাবে এটা এখন নিশ্চিত।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *